খবর

রাজ্যের পাশাপাশি মুর্শিদাবাদ জেলার খড়গ্রামের বালিয়াই গ্রামে শুরু তৃণমূলের ‘চলো গ্রামে যাই’ কর্মসূচি

রাজেন্দ্র নাথ দত্ত,মুর্শিদাবাদ: ‘চলো গ্রামে যাই।’ পঞ্চায়েত ভোটের আগে শুরু হলো তৃণমূলের নয়া কর্মসূচি। মুর্শিদাবাদ জেলার কান্দী মহকুমার খড়গ্রাম ব্লকের বালিয়া অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেস ও মহিলা তৃণমূল কংগ্রেস এই কর্মসূচি পালন করলো। উদ্বোধন করেন মুর্শিদাবাদ জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদের সভাপতি ও খড়গ্রাম বিধানসভার বিধায়ক আশীষ মার্জিত। উপস্থিত ছিলেন খড়গ্রাম পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি সামশের আলী মোমিন, বালিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান গোকুল ঘোষ, বিশিষ্ট সমাজসেবী শাশ্বত মুখার্জী, খড়গ্রাম পঞ্চায়েত সমিতির কৃষি কর্মাধ্যক্ষ সুপ্রিয় ঘোষ, মহিলা নেত্রী জীতু কর্মকার ও কেরিমা দি। মঙ্গলবার থেকে রাজ্য জুড়ে শুরু হলো এই কর্মসূচি, চলবে আগামী ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত। বুথ ভিত্তিক রিপোর্টের পাশাপাশি চলবে মহিলা পঞ্চায়েতি সভাও। দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে এই কর্মসূচির মাধ্যমে রাজ্যের সব পঞ্চায়েতে পৌঁছে যেতে চায় দল। প্রায় ৩৩৪২ গ্রাম পঞ্চায়েতে সকলে পৌঁছে যাবেন। ২০১১ সালে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পরে, রাজ্য জুড়ে একাধিক সামাজিক প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। উন্নয়নমূলক প্রকল্পের মাধ্যমে মহিলাদের জন্য একাধিক স্কিম আনানো হয়েছে। মহিলারা সেই সুবিধা পাচ্ছেন। আগামীদিনেও সেই উন্নয়নের ধারাও বজায় থাকবে৷ এটাই মানুষের কাছে পৌঁছে যাওয়ার মাধ্যমে বোঝানোই মূল উদ্দেশ্য। আপাতত পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে, একসঙ্গে দুটি কর্মসূচি পালন করা হবে। একদিকে গ্রামের মহিলারা যাবেন বাড়ি বাড়ি। অন্যদিকে পঞ্চায়েতি রাজ সম্মেলন মহিলাদের নিয়ে করা হবে। স্থির হয়েছে আপাতত আগামী ৭৫ দিন ধরে চলবে এই রাজনৈতিক কর্মসূচি। দলীয় সূত্রে খবর, প্রতি ২৫ দিন অন্তর অন্তর রিপোর্ট দেওয়া হবে। তার প্রেক্ষিতে পরবর্তী কর্মসূচি স্থির করা হয়েছে।