খবর

পাওনা টাকা নিয়ে সংঘর্ষ, জখম ১২, বাড়ি ভাঙচুর আগুন, গ্রেপ্তার ১

basir-2সৌমাভ মণ্ডল, উত্তর ২৪ পরগণা: বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে মারধর, আগুন লাগানো ও ভাঙচুরের অভিযোগ আক্রান্ত তৃণমূল। বসিরহাট মহকুমার হাসনাবাদ থানার বরুণহাট সর্দার পাড়ার ঘটনা। স্থানীয় মোজাফ্ফর গাজীর কাছে ১০০০ টাকা পেত হবিবুর মিস্ত্রি। রবিবার রাত আটটা নাগাদ সেই টাকা চাইতে গেলে প্রথমে বচসা, গন্ডগোল ও মারধর হয় দুই জন জখম হয়। হাসপাতালে চিকিৎসা করে বাড়ি ফিরে হাবিবুর স্থানীয় বিজেপি নেতা পিন্টু মোল্লাকে খবর দিলে দলবল সে নিয়ে গিয়ে মোজাফ্ফর গাজীর পরিবারের উপরে রবিবার ভোররাতে বাঁশ, লোহার রড ও হাতুড়ি দিয়ে হামলা চালায়। মহিলারাদের মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয়। রেয়াত পাইনি বাচ্চা শিশুরাও। তাদেরকেও মারধর করা হয়। মোজাফ্ফর গাজীর স্ত্রী মহিলা-শিশুসহ মোট আটজন টাকি গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি।

পাশাপাশি বাড়ি ভাঙচুর করে দুটো বাড়িতে পেট্রোল দিয়ে আগুন লাগিয়ে দেওয়ারও অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় গ্রেপ্তার হয়েছে একজন। শুধুই কি পাওনা টাকা চাওয়া নিয়ে গণ্ডগোল বচসা না এর পিছনে রয়েছে রাজনৈতিক কারণ? বেশ কিছুদিন আগে এলাকায় মারধর ও গন্ডগোল পাকানোর অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছিল  বিজেপি নেতা পিন্টু মোল্লা। কিছু দিন আগে সে জেল খেটে বাড়ি ফিরেছে। সেই ঘটনায় পিন্টু মোল্লার বিরুদ্ধে মোজাফ্ফর গাজী সহ বেশ কিছু জন অভিযোগ করেছিল। ছাড়া পেয়ে তাদের উপর বেছে বেছে চড়াও হয়ে বাড়িতে আগুন, ভাঙচুর ও মারধর করার অভিযোগ ওঠে। আক্রান্ত পরিবারে সকলেই তৃণমূল কংগ্রেসের সমর্থক বলে এলাকায় পরিচিত। সেক্ষেত্রে বলাই যায় প্রথমে পাওনা টাকা অজুহাত দেখিয়ে হামলা চালালেও এর পিছনে রয়েছে রাজনৈতিক কারণ। আক্রান্ত পরিবার মোজাফ্ফর গাজী তারা দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে। দুটো বাড়ি আগুনে ভস্মীভূত হয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসারত ৫ জনের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।