বিবিধ

‘বাঙালিয়ানা টেলিথন’ ঘিরে উচ্ছ্বাস

0214563

index

বিশেষ প্রতিবেদন: বাংলা টেলিভিশন চ্যানেলে প্রথম ‘টেলিথন’-এর আয়োজন করেছিল TV9 বাংলা। TV9 বাংলার ‘বাঙালিয়ানা টেলিথন’ সব দিক থেকেই সম্পূর্ণ সফল। ১৩ ফেব্রুয়ারি সম্প্রচারিত ‘টেলিথন’ সাড়া ফেলে দিয়েছে দেশ এমনকী বিদেশেও। অনুষ্ঠানটির নেপথ্যে সার্বিক ভাবনা, সঙ্গে বিষয়বস্তু বাছাই এবং তার উপস্থাপনা নিয়ে উচ্ছ্বসিত প্রশংসা এসেছে দর্শকের দরবার থেকে। ১৩ ফেব্রুয়ারি, দুপুর ১টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত টানা দশ ঘণ্টা এক ম্যারাথন আলোচনায় অংশ নিয়েছিলেন দেশ-বিদেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রের বিশিষ্টজনেরা। দীর্ঘ ওই অনুষ্ঠান মুগ্ধতার রেশ ছড়িয়েছে সর্বত্র। বাঙালির কাল-আজ-কাল নিয়ে আলোচনা ও আত্মসমীক্ষার এই অনুষ্ঠানটির সামগ্রিক পরিকল্পনা TV9 নেটওয়ার্কের সিইও বরুণ দাসের। TV9 বাংলার ‘বাঙালিয়ানা টেলিথন’-এর কেন্দ্রবিন্দু ছিলেন তিনিই। বরুণ দাসের দক্ষ সঞ্চালনা-পরিবেশন মাত্রা জুড়েছে সমগ্র অনুষ্ঠানে। এই ইতিবাচক উদ্যোগ ও নিপুণভাবে অনুষ্ঠান পরিচালনায় বরুণ দাসের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন দর্শকরাও। এঁদের অনেকেই দেশ বা বিদেশে প্রতিষ্ঠিত বাঙালি। ‘বাঙালিয়ানা টেলিথন’-এ বরুণ দাসের সঙ্গে কো-হোস্ট ছিলেন চলচ্চিত্র পরিচালক গৌতম ঘোষ, অভিনেত্রী অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়, অভিনেতা অনির্বাণ ভট্টাচার্য ও TV9 বাংলার অ্যাঙ্কর রুমেলা চক্রবর্তী। TV9 নেটওয়ার্কের সিইও বরুণ দাস, গৌতম, অর্পিতা, অনির্বাণ, রুমেলারা অহেতুক চেঁচামেচির চেনা ছকের বাইরে উঠে পরিণত ও পরিশীলিতভাবে অনুষ্ঠান পরিচালনা করে গিয়েছেন আগাগোড়া। ফলে আরও গভীর হয়েছে বাঙালির নানা দিক নিয়ে আলোচনা-পর্যালোচনা। TV9 বাংলার ‘বাঙালিয়ানা টেলিথন’-এ আলোচনার মান ও গভীরতা নিয়ে উচ্ছ্বসিত নাসা-র প্ল্যানেটারি জিয়োলজিস্ট অমিতাভ ঘোষ।

K S FIRE INSTITUTE

ওয়াশিংটন ডিসি থেকে অমিতাভর মন্তব্য, ‘TV9 বাংলায় ‘বাঙালিয়ানা’ টেলিথন নিয়ে একটা বিষয়ই জানাতে চাই। সেটা হল, সব প্যানেল ডিসকাশনই অসাধারণ হয়েছে।’ ‘টেলিথন’-নিয়ে উচ্ছ্বাস জানিয়েছেন চলচ্চিত্র বিশেষজ্ঞ সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়, রাষ্ট্রবিজ্ঞানের বিশিষ্ট অধ্যাপক মইদুল ইসলাম ও ফরাসিবিদ-ইংরেজির প্রখ্যাত শিক্ষক চিন্ময় গুহ, প্রখ্যাত সরোদিয়া তেজেন্দ্রনারায়ণ মজুমদারও। তেজেন্দ্রনারায়ণ মজুমদারের কথায়, ‘এ ধরনের চিন্তা একটা চ্যানেল করেছে, এটা অভিনব। এবং এতগুলো বিষয় নিয়ে অনুষ্ঠানেও অভিনবত্ব রয়েছে। বাঙালির সংস্কৃতি, শিক্ষা, রাজনীতি মধ্যে নিজস্বতা আছে। সবকটা পার্সপেক্টিভকে ধরার চেষ্টা সত্যিই অসাধারণ। এটা জারি থাকলে খুবই ভালো হয়।’ চিন্ময় গুহ বলেছেন, ‘ইতিহাসের এই মুহূর্তে বাঙালিয়ানা নিয়ে আলোচনা অত্যন্ত জরুরি ছিল। TV9 বাংলায় ‘বাঙালিয়ানা টেলিথন’-এ সেই আলোচনা শুরু হল। সেটাই বা কম কী।’  চলচ্চিত্র বিশেষজ্ঞ সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়ের কথায়, ‘বাঙালিয়ানা টেলিথন-এর উদ্যোগটা আমার খুব ভালো লেগেছে। অনেক দিন বাংলা ও বঙ্গ সংস্কৃতিকে এক সঙ্গে দেখার চেষ্টা হয়নি। কিন্তু টেলিথনে সাহিত্য, সিনেমা, থিয়েটার, অর্থনীতি, রাজনীতি-সহ নানা বিষয়কে একটা সামগ্রিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে দেখা হয়েছে। যাঁরা এই আলোচনায় অংশ নিয়েছিলেন, তাঁরা প্রত্যেকেই গুণী মানুষ। তাঁদের আলোচনা আমাদের ঋদ্ধ করেছে। আশা করি, এমন উদ্যোগ TV9 বাংলা আবার নেবে।’ মইদুল ইসলাম বলেছেন, ‘আমি অনুষ্ঠানটা দেখেছি। খুবই ভালো হয়েছে।’ দর্শকদের ভালোলাগারও কিছু ঝলক মিলেছে।

untitled-2-1

যেমন কেউ বলেছেন, ‘বহুদিন পর খুব সুন্দর একটা অনুষ্ঠান দেখলাম, মন ছুঁয়ে গেল। বরুণ দাসের উপস্থাপনা অসাধারণ ও চমৎকার লাগল। তাঁকে অভিনন্দন জানাই।’ কেউ বলেছেন, ‘একটা প্রবহমান আনন্দের মধ্যে দিয়ে চলেছি মনে হচ্ছে। TV9-এর এই অনুষ্ঠান একদম অন্য রকম। আমাদের ছোটবেলায় মাঝে মাঝে এই জাতীয় অনুষ্ঠান হত টিভিতে। এই টেলিথন একেবারেই আলাদা একটা আনন্দ দিল।’ দেশের অনেক ‘প্রথম’-এর সূচনা এই বাংলায়। ফলে ‘বাঙালিয়ানা’র সৌরভ ছড়িয়ে পড়েছিল সারা ভারতে। সৃষ্টি ও কৃষ্টিতে অন্যান্য প্রদেশের বাসিন্দার থেকে এগিয়ে ছিলেন বাংলাবাসী। কিন্তু বর্তমানে কোথায় দাঁড়িয়ে আছে বাঙালি, নতুন পথের দিশা মিলবে কীভাবে, তার চুলচেরা বিশ্লেষণের জন্যই প্রথম বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে এমন একটা অনুষ্ঠানকে বেছে নিয়েছে TV9 বাংলা। আত্মসমীক্ষার এই মঞ্চে বাঙালিয়ানা কী, বাংলার নবজাগরণ, সাহিত্য, সিনেমা, থিয়েটার, গান, শিল্প, আড্ডা, নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা-পর্যালোচনা করেছেন বিশিষ্ট অতিথিরা। অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি পর্বে TV9 নেটওয়ার্কের সিইও বরুণ দাস বলেছিলেন, ‘TV9 বাংলা বাঙালির গৌরবের খোঁজে অন্ততপক্ষে ১০ কোটি বাঙালি জাগিয়ে তুলতে চায়, জড়িয়ে নিতে চায় এই কর্মকাণ্ডে। বর্তমানে আলো ফেলে আলোচনা করতে চায় ভবিষ্যতের রোডম্যাপ নিয়েও। বিশিষ্ট বাঙালিদের নিয়ে এর জন্য় তৈরি হয়েছে উপদেষ্টা কমিটি। এই কমিটির সদস্যরা প্রত্যেকে নিজের নিজের ক্ষেত্রে এক একজন কিংবদন্তি। বাঙালিয়ানার পুনরুজ্জীবনে তাঁরা আমাদের সমৃদ্ধ করবেন এবং আমাদের গন্তব্যে পৌঁছনোর পথে সাহায্য করবেন।’

gnc-advt-6x4-for-web209419418_1140649856410940_4719109323388593608_nadvt112-for-advt-sankha-senfor-nwslatest-advt-of-jotishuntitled-3untitled-1-3advt-banneradvt-banner.3advt-4advt-3advt-2advt-192a03-9a4f02_3b93dab5c7d14f67afae52ceac3ab2d5mv21efab-9a4f02_51435a5163204d4c9eb67ab6f3a56a68mv2

Categories: বিবিধ