খবর

হুগলী সংশোধনাগারের সামনে বিদ্রোহী কবির স্মৃতিচারণ তাঁর মৃত্যুদিনে

nojrulনিজস্ব প্রতিবেদন:  কবি নজরুল ইসলাম। গদ্য, পদ্য কবিতা, সঙ্গীত-এই সব সৃষ্টি ছিল তাঁর ধূমকেতুর মতো। তাঁর রচনা পূর্ন করেছে সৃষ্টির ভুবন। আজ বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪৬ তম মৃত্যুদিন। আর আমরা উপস্হিত হয়েছি  হুগলী সংশোধনাগারের সামনে তাঁর মর্মর মূর্তিতে মাল্যদান করে শ্রদ্ধা  জানাতে। ১৯২৩ সালে জানুয়ারী মাসের  শেষ পক্ষ। ধূমকেতু পত্রিকায় বৃটিশ বিরোধী  কবিতা প্রকাশের অপরাধে-রাজদ্রোহের অপরাধে হুগলী জেলে এসেছিলেন কারাদন্ডের হুকুমে। তখন এগিয়ে এসেছিলেন স্বাধীনতা সংগ্রামী সিরাজুল হক,  হামিদুল হক,  কবি সুবোধ রায় আরও অনেকে।

হুগলী জেলের সুপারিন্টেনডেন্ট  আর্সটন তখন রাজনৈতিক বন্দীদের ওপর ভীষন অত্যাচার চালালে নজরুল তার প্রতিবাদ করতেন। আর এই জেলের ৫ নং সেলে বসে নজরুল লিখেছিলেন কারার ঐ লৌহকপাট/ ভেঙে ফেল্, করলে লোপাট/ রক্ত জমাট/ শিকল পূজার পাষাণ বেদী।। আজ হুগলী- চুচুড়া  নজরুল স্মৃতি সংরক্ষণ সমিতি হুগলী সংশোধনাগারের সামনে নজরুল মূর্তিতে মাল্যদান ও সংগীতের মধ্য দিয়ে পালন করার কর্মসূচী গ্রহণ করে। উপস্হিত ছিলেন সংগঠনের  সভাপতি প্রাক্তন মন্ত্রী নরেন দে,  সম্পাদক শিশির চক্রবর্তী,  সহ-সভাপতি দিলীপ সাহা, সাংবাদিক শ্যামল সিংহ,  চিত্তপ্রিয় শীল,  সোমনাথ চট্টাোপাধ্যায় সহ বিশিষ্ট জনেরা।