বর্তমান সময়

ব্ল্যাক ফাঙ্গাস সম্পর্কে কিছু কথা

dr-sridip-roy

ডাঃ শ্রীদীপ রায় : করোনা সংক্রমিত রোগীদের দেহে দেখা দিচ্ছে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস নামক বিরল একটি ফাঙ্গাস সংক্রমন (Rare Fungal Infection), যাকে চিকিত্‍সার পরিভাষায় বলা হচ্ছে ‘মিউকরমাইকোসিস’। এখন আসুন দেখে নেওয়া যাক ব্ল্যাক ফাঙ্গাস বা এই মিউকরমাইকোসিস ঠিক কি বা কেন এর সংক্রমন হয়। যদি কোন রোগীকে দীর্ঘদিন যাবত্ আই.সি.সি.ইউতে থাকতে হয় এবং লাগাতার স্টেরয়েড ব্যবহার করতে তিনি বাধ্য হন, তবে ওই রোগীর শরীরে সাধারণ রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা কমে গিয়ে তাঁর শরীরে মিউকরমাইকোসিস বা ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সংক্রমন ঘটতে পারে।

মিউকরমাইকোসিস বা ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে কারা আক্রান্ত হতে পারেন?

কোভিড রোগী ছাড়াও যাঁদের রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা কম এবং ক্যান্সারের সঙ্গে সঙ্গে অ-নিয়ন্ত্রিত সুগারের রোগীদের এই রোগে আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

রোগের লক্ষণ: (ক)নাকের ওপরে কালচে দাগ, নাক থেকে কালচে রক্তপাত বা তরল বেরোনো।

(খ) চোয়ালে বা মুখের একদিকে ব্যাথা।

(গ) নিঃশ্বাসের সমস্যা, ত্বকের সমস্যা।

(ঘ) দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে আসা।

(ঙ) দাঁতের সমস্যা, জননাঙ্গে ব্যাথা।

(চ) জ্বর, কাশি, রক্তবমি, শ্বাসকষ্ট হওয়া প্রভৃতি।

black-fungas

কিভাবে সতর্ক থাকা যাবে:

করোনা সংক্রমনের পর ওপরের উপসর্গগুলির মধ্যে কোনও লক্ষণ দেখা গেলেই চিকিত্‍সকের পরামর্শ নিতে হবে। স্টেরয়েড ব্যবহার বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। শরীরে সুগারের পরিমানকে নিয়ন্ত্রনে রাখতে হবে। দিনের আসলই নিয়মিত নাক আর মুখের ভিতর দেখতে হবে, কোথাও কোনও কালো জমাট ছোপ পড়ছে কিনা তা নজরে রাখতে হবে।

কোনও রকম অসুবিধা মনে হলেই এই বিষয়ে অভিজ্ঞ চিকিত্‍সকের পরামর্শ নেওয়া একান্ত প্রয়োজনীয়।

149274739_1955175504622875_8761804105952090197_o149560606_1955498754590550_7537541499495602122_oadvt-4output_XelYeXadvt112-for-advt-sankha-sen