খবর

প্রথম দফার ভোটের দিন পরিবর্তণ করার আবেদন নির্বাচন কমিশনার কে

Untitled-1নিজস্ব সংবাদদাতা: রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হয়ে গেছে, জাতীয় নির্বাচন কমিশনার বাংলায় ৮ দফা নির্বাচনের প্রথম দফার ভোট  দোলের ঠিক আগের দিন ২৭শে মার্চ ঘোষনা করেছেন। আর ঠিক দোলের আগের দিন ভোটের প্রথম পর্বের ভোটের দিন পড়ায় ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা করছেন এই রাজ্যের পর্যটন ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত সকলে। আর এই উদ্দেশ্যে আজ আজ দুপুরে কলকাতায়  নির্বাচন কমিশনারের অফিসে ট্রাভেল এজেন্টস এস্যোসিয়েশন অফ বেঙ্গল কলকাতা ও জেলার সদস্যদের নিয়ে এক ডেপুটেশন জমা দেয়। এই বিষয়ে ট্রাভেল এজেন্টস এস্যোসিয়েশন অফ বেঙ্গলের সম্পাদক নীলাঞ্জন বসু আমাদের জানান, দোলের ঠিক আগের দিন ইলেকশন মানে প্রোটকল অনুযায়ী বাঁকুড়া,  পুরুলিয়া,  ঝাড়গ্রাম,  দুই মেদিনীপুর অঞ্চলে পর্যটন নিষিদ্ধ। কিন্তু ইতিমধ্যেই অধিকাংশ পর্যটক এই সকল পর্যটন কেন্দ্রে তাঁদের অগ্রিম বুকিং সেরে রেখেছিলেন। আর ঠিক এই সময়ে ভোটের দিন ঘোষণায় ব্যাপক ক্ষতির সম্মুক্ষীণ ট্যুরিজম ইন্ডাস্ট্রির লজ, হোটেল, গাড়ি, এজেন্ট, কন্সালট্যান্ট নয়, সমগ্র পর্যটকরাও। এর সঙ্গে ভ্রমণস্থলে পরোক্ষভাবে পর্যটনের সাথে যুক্ত মানুষরাও দারুন ক্ষতির সম্মুখীন।

নীলাঞ্জন বাবু বলেন তাঁদের সংগঠন নির্বাচন কমিশনারকে চিঠি দিয়ে অনুরোধ করেছেন  আটদফা ভোটের শুধু প্রথম দফার দিনটি অর্থাত্‍ ২৭ তারিখের ভোটের দিনটি বদল করার জন্য। তাহলে অসংখ্য সাধারন মানুষ যাদের দোলের সমস্ত বুকিং হয়ে গেছে  তারা হয়রানির হাত থেকে বাঁচবেন, ও বিগত এক বছর ধরে চলতে থাকা অচলাবস্থা থেকে কিছুটা হলেও উঠতে থাকা পর্যটন শিল্প প্রাণ পাবে। এছাড়াও ট্রাভেল এজেন্টস এস্যোসিয়েশন অফ বেঙ্গলের পক্ষ থেকে ভোটের জন্য যেভাবে বেপরোয়া ভাবে গাড়ি ধরা হয় সেটার একটা নিদিষ্ট নিয়মনীতি করার জন্য এদিন নির্বাচন কমিশনারকে অনুরোধ করা হয়েছে বলে নীলাঞ্জন বাবু জানান।