খবর

রাজনীতির ময়দানে সদ্য ইস্তফা দেওয়া রাজ্যের দুঁদে পুলিশ কর্তা আইপিএস ডঃ হুমায়ুন কবীর

রাজনীতিতে যোগ দিয়ে সংবাদ প্রতিখনের সম্পাদকের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাত্‍কারে ডঃ হুমায়ুন কবীর

dr-humayun-kobir

তৃণমূল কংগ্রেসে রাজ্যের সদ্য ইস্তফা দেওয়া আইপিএস ডঃ হুমায়ুন কবীর। আজ পূর্ব বর্ধমানের কালনায তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জীর সভায় অনুষ্ঠানিক ভাবে তৃণমূলের দলীয় পতাকা তুলে নিলেন সদ্য ইস্তফা দেওয়া রাজ্যের এই প্রাক্তন দুঁদে পুলিস কর্তা, হুমায়ুন কবীর। রাজনীতির ময়দানে পা দিয়ে সংবাদ প্রতিখনকে দেওয়া এক একান্ত সাক্ষাত্‍কারে হুমায়ুন কবীর জানান, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উন্নয়নের যে কর্মযজ্ঞ চালু রেখেছেন এবং মূলত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাজের প্রেরণাই ওনার তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করা। তিনি বলেন যেভাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বন্যা, কোভিড পরিস্থিতিতে ও আম্ফানের সময়  এই রাজ্যের সাধারণ মানুষের পাশে যেভাবে থেকেছেন তা থেকে অনুপ্রাণিত হয়েই তাঁর রাজনীতিতে প্রবেশ। ডঃ হুমায়ুন কবীর মুখ্যমন্ত্রীর দুয়ারে সরকার ও পাড়ায় পাড়ায় সমাধান শীর্ষক দুটি প্রকল্পের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন এই দুটি পদক্ষেপ যুগান্তকারী ও অতুলনীয় পরিকল্পনা। তিনি আরও বলেন রাজ্যে সম্প্রতি একটি দল গেল গেল রব তুলে ভয় দেখানোর চেষ্টা করছে, তিনি সকলের উদ্দেশ্যে বলেন ভয় পাবার কোনও কারণ নেই, কোনও কিছুই শেষ হয়ে যায় নি। তিনি জোর দিয়ে বলেন, যে দল এই গেল গেল রব তুলে রাজ্যে একটি ভয়াবহ পরিস্থিতির বাতাবরণ সৃষ্টি করতে চাইছে যে উদ্দেশ্যে আগামী নির্বাচনে তাঁদের সেই উদ্দেশ্য স্বার্থক রূপ পাবে না।

humayun-kobir

তৃণমূল কংগ্রেসের দলত্যাগীদের বিষয়ে ডঃ কবীর বলেন, কিছু মানুষ তাঁদের নিজস্ব এজেণ্ডার কারণে দল ছাড়লেও রাজ্যের আপামর মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গেই ছিল, আছে ও থাকবে। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে তাঁকে প্রার্থী হিসাবে আমরা দেখতে পাচ্ছি কিনা এই বিষয়ে জানতে চাইলে হুমায়ুন কবীর বলেন, এই বিষয়ে তাঁর নিজস্ব ইচ্ছা-অনিচ্ছা কোনও ব্যাপার নেই, তিনি বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁকে যেভায়ে বলবেন সেভাবেই তিনি দলের কাজ করে যাবেন। এছাড়াও তাঁর অন্যতম শখ লেখালেখি ও সিনেমা পরিচালনার কাজ তিনি চালিয়ে যাবেন বলে জানলেন রাজ্যের সদ্য প্রাক্তন দুঁদে আইপিএস ডঃ হুমায়ুন কবীর।