খবর

সুন্দরবনে আদিবাসী ও ভিন রাজ্যের শ্রমিকের বাচ্চারা পেল নতুন শিক্ষাঙ্গন

basirসৌমাভ মণ্ডল, বসিরহাট, সংবাদ প্রতিখন: বসিরহাট মহকুমার সুন্দরবনের সন্দেশখালি বিধানসভার ধামাখালিতে একটি ভাটার মধ্যে নতুন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সূচনা হলো। সুন্দরবনের এই প্রত্যন্ত এলাকায় প্রচুর ভাটা রয়েছে। সুন্দরবনের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে তো বটেই পাশাপাশি ভিন রাজ্য থেকেও শ্রমিকরা পেটের টানে এই সমস্ত ভাটাগুলোতে কাজ করতে আসে। দিনের পর দিন ভাটায় থাকার সুবাদে তাদের বাচ্চারা শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছিল। যেতে পারছিল না স্কুলে, পাচ্ছিল না পর্যাপ্ত শিক্ষা। যার জেরে সমাজের মূল স্রোত থেকে এই প্রজন্ম পিছিয়ে পড়ছে। এই সমস্যা সমাধানে এবার এগিয়ে এলো সরবেড়িয়া আগারহাটি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান শেখ শাহজাহান, উত্তর ২৪ পরগণা জেলা পরিষদের সদস্য শিবপ্রসাদ হাজরা ও সন্দেশখালির বিধায়ক সুকুমার মাহাতোরা। লক্ষ্য ভাটার শ্রমিকদের বাচ্চারা যেন আগামী দিনে নিজের পায়ে দাঁড়াতে সক্ষম হয় ও সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে। মূল উদ্যোক্তা শেখ শাহাজান জানান, দিনের পর দিন ভাটার মধ্যে ঘর বেঁধে থাকে এই শ্রমিকরা। যার জেরে বাচ্চারা স্কুলে যেতে পারে না তার ফলে তারা পর্যাপ্ত শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হয়। এরাই সুস্থ সমাজ গঠন করতে পারে না এমনকি শিক্ষার অভাবে অনেক সময় বিপথে চালিত হয়। তাই সমস্ত ভাটার মালিকের উচিত এই পিছিয়ে পড়া শ্রমিকদের বাচ্চাদের জন্য শিক্ষার ব্যবস্থা করা। এর ফলে সামাজিক সামঞ্জস্য বজায় থাকবে। ধামাখালির একটি ভাটার মধ্যে এই প্রাথমিক বিদ্যালয় থাকবে প্রথম থেকে চতুর্থ শ্রেণী পর্যন্ত শিক্ষার ব্যবস্থা। এমনকি সেখানে আধুনিক শিক্ষার ব্যবস্থাও করা হয়েছে। পাশাপাশি চারজন নতুন শিক্ষিকাকেও নিযুক্ত করা হয়েছে ৩৫০ পড়ুয়াকে শিক্ষাদানের জন্য। তাদের বেতন, ছাত্র-ছাত্রীদের ইউনিফর্ম ও বইখাতার ব্যবস্থাও করা হয়েছে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে। এই অভিনব উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সুন্দরবনের আদিবাসী ও ভিন রাজ্য থেকে আসা শ্রমিক অভিভাবকরা।