খবর

সুন্দরবনে বিজেপি-সিপিএমে বড়োসড়ো ভাঙ্গন

basuir-2সৌমাভ মণ্ডল: বিজেপির বুথ সভাপতি ও সিপিএমের লোকাল কমিটির সম্পাদক সহ পাঁচ শতাধিক নেতা কর্মীর তৃণমূলে যোগদান। বসিরহাট মহকুমার সুন্দরবনের হিঙ্গলগঞ্জ ব্লকের যোগেশগঞ্জ বাজারের নেতাজি ময়দানে কেন্দ্রের কৃষি বিলের বিরোধিতা ও রেলের বেসরকারিকরণের বিরুদ্ধে প্রকাশ্য জনসভায় মিছিল করে বিজেপি, সিপিএম ও কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করেন। তাদের হাতে তৃণমূলের দলীয় পতাকা তুলে দেন তৃণমূল কংগ্রেসের উত্তর ২৪ পরগণা জেলা সভাপতি তথা রাজ‍্যের খাদ‍্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, তৃণমূলের উত্তর ২৪ পরগণা জেলার কো-অর্ডিনেটর নারায়ণ গোস্বামী, হিঙ্গলগঞ্জের বিধায়ক দেবেশ মন্ডল ও তৃণমূলের হিঙ্গলগঞ্জ ব্লক সভাপতি শহীদুল্লাহ্ গাজী সহ একাধিক নেতৃত্বরা। এই জনসভায় উপস্থিত ছিলেন রাজ‍্য বিধানসভার মুখ‍্য সচেতক নির্মল ঘোষ, বসিরহাটের সাংসদ নুসরাত জাহান,  সিপিএম থেকে সদ‍্য তৃণমূলে আসা রফিকুল ইসলাম সহ বিশিষ্ট নেতৃত্বরা। খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, “সুন্দরবনের আয়লা প্রকল্প মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যতদিন বেঁচে থাকবেন ততদিন এই প্রকল্প সুবিধা পাবেন। পাশাপাশি রাজ্যের ১০কোটি ১৮লক্ষ মানুষ খাদ্যসাথী বিনামূল্যে পাচ্ছেন। এছাড়া ২০২১ এর নির্বাচনে বিজেপি যতই ধর্মীয় উস্কানি দিক না কেন, কুড়িটি আসনের বেশি জিততে পারবেনা। এছাড়া তিনি বলেন, “শুভেন্দু অধিকারী দলের একজন সৈনিক, তিনি দলে আছেন, ভবিষ্যতেও থাকবেন। রাজ্যের কৃষকদের থেকে ন্যায্যমূল্যের ৫২ লক্ষ মেট্রিক টন ধান কেনা হবে। চলতি নভেম্বর মাস থেকে পাশাপাশি তাদেরকে গন্তব্যস্থলে পৌঁছানোর জন্য প্রতি কুইন্টাল কুড়ি টাকা করে উৎসাহ ভাতা দেওয়া হবে। কৃষকের কান্না কোনমতেই রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেখতে পারবেন না, তাই আজীবন তাদের পাশে থাকবেন।”

output_9W9bpBgif advtUntitled-2Untitled-1Untitled-3