খবর

হুগলিতে দিলীপ যাদবের ক্ষমতা খর্ব

1নিজস্ব সংবাদদাতা: হুগলিতে তৃণমূলের অন্দরের গোষ্ঠীকোন্দল মেটাতে স্বয়ং হস্তক্ষেপ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হুগলি জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের অন্দরের গোষ্ঠীকোন্দল সর্বসমক্ষে উঠে আসছিল এই জেলার তৃণমূল নেতৃত্বদের কথায়। অপরদিকে এই জেলায় গত লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলে কোনভাবেই সন্তুষ্ট ছিলেন না তৃণমূল রাজ্য নেতৃত্ব। ক্রমশ জেলার নিজেদের অন্দরের ক্রমবর্ধমান গোষ্ঠীকোন্দল মেটাতে অবশেষে এই বিষয়ে রাশ টানলেন তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রীমো স্বয়ং। গতকাল কলকাতায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে এই জেলার জেলা সভাপতি দিলীপ যাদব, জেলার দুই সাংসদ কল্যান বন্দ্যোপাধ্যায় ও আফরিন আলি অপরূপা পোদ্দার, বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল, স্নেহাশিস ব্যানার্জী ও মন্ত্রী তপন দাশগুপ্তকে নিয়ে বৈঠকের মাঝে আচমকাই তৃণমূল সুপ্রীমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফোন করেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তিনি বলেন এবার থেকে হুগলি আমিই দেখবো, জেলা সভাপতি দিলীপ যাদবের ডানা ছেঁটে দিয়ে তিনি বলেন কেউ একা কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারবে না, সবাইকে এক সাথে চলতে হবে, না হলে ব্যবস্থা নেবেন তিনি। dashabhuja samman 2020 last date

তিনি জেলা সভাপতির ক্ষমতাকে কার্যত খর্ব করে আট জনের এক কোর কমিটি তৈরি করে দেন। কমিটিতে থাকছেন শ্রীরামপুরের সাংসদ কল্যাণ ব্যানার্জী, বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল, জেলা সভাপতি দিলীপ যাদব, মন্ত্রী তপন দাশগুপ্ত, মন্ত্রী অসীমা পাত্র, সাংসদ অপরূপা পোদ্দার, বিধায়ক বেচারাম মান্না ও বিধায়ক স্নেহাশীষ চক্রবর্তী।

output_9W9bpB

সংবাদে প্রকাশ আগামী বিধানসভা ভোটে হুগলি জেলার জন্য রূপরেখাও ঠিক করবে আট জনের এই কোর কমিটি। জেলার রাজনৈতিক মহলের মতে জেলা সভাপতির সঙ্গে বাকি ৭জন বিধায়ক ও সাংসদ কে নিয়ে এই কোর কমিটি তৈরি করে দিয়ে কার্যত হুগলি জেলা সভাপতি দিলীপ যাদবের ডানা ছাটলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

gif advtUntitled-2advt-5advt-4advt-1advt-3Untitled-1