খবর

নববধূকে দিয়ে দেহ ব্যবসা করানোর অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে

soumabhaসৌমাভ মণ্ডল, বসিরহাট: বসিরহাট মহকুমার হাড়োয়া থানার শালিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের আন্দুলিয়া গ্রামের ঘটনা। ১ মাস আগে ঐ বধূর বিয়ে হয় আন্দুলিয়া গ্রামের বাসিন্দা সঞ্জয় ঘোষের পুত্র ২৩ বছরের সমির ঘোষের সঙ্গে। পেশায় সে কসাই। বকজুড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের পশ্চিম ভয়দা গ্রামের কুড়ি বছরের যুবতীর সঙ্গে প্রায় ৫ লক্ষ টাকা পনের বিনিময়ে বিবাহ হয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামী সমীর ঘোষ স্ত্রীকে বলেন তার বাপের বাড়ি থেকে ৫০ হাজার টাকা এবং তিন ভরি সোনা নিয়ে আসতে। সেই প্রস্তাবে রাজি হয় না বধূ। গৃহবধূ প্রতিবাদ করে জানায় আমার বাবা ফুচকা বিক্রি করে রোজগার করেন। আমার বাবা এতো টাকা পাবে কোথায়? স্ত্রীর অভিযোগ স্বামী পরিকল্পনা করে তাকে জোর করে দেহ ব্যবসায় নামিয়েছে। দেহব্যবসা করানোর পর ইতিমধ্যে তাকে বিক্রি করার জন্য বেশ কয়েকবার কলকাতার কয়েকটি বারেও নিয়ে গিয়েছে। এমনকি অভিযুক্ত সমীর ঘোষ প্রায়ই দিন মদ্যপ অবস্থায় এসে স্ত্রীকে মারধর করতো। আবার কখনো বন্ধুদের থেকে মোটা টাকা নিয়ে স্ত্রীর ঘরে তাদের ঢুকিয়ে দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

ইতিমধ্যে হাড়োয়া থানায় নির্যাতিতা নববধূ অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগের কথা জানার স্বামী সমীর গৃহবধূকে ফোন করে বিভিন্ন ভাবে খুনের হুমকি দিচ্ছে। অভিযোগের ভিত্তিতে হাড়োয়া থানার পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। এর পিছনে আর কারা কারা জড়িত রয়েছে সে ব‍্যাপারে তদন্ত চালাচ্ছে পুলিশ। যদিও অভিযুক্ত পলাতক। স্বামীর মারের আঘাতের জন্য ইতিমধ্যে বেশ কয়েকবার ওই নববধূকে নিয়ে হাড়োয়া গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসাও করানো হয়েছে।

advt-5advt-4advt-3advt-1advt-2