Site icon Sambad Pratikhan

বিমানসেবিকাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের পর ধর্ষণ করে গর্ভপাত করানোর অভিযোগ যুবকের বিরুদ্ধে

Advertisements

সৌমাভ মণ্ডল, উত্তর ২৪ পরগণা: বসিরহাট মহকুমার হাড়োয়া থানার শালিপুর গ্রামের ঘটনা। বছর ২৯ এর যুবক গিয়াসঊদ্দিন মোল্লার বাড়ি দক্ষিণ ২৪ পরগণার কাশিপুর থানার শ্যামনগর এলাকায়। এর সঙ্গে পরিচয় হয় বছর চব্বিশের যুবতীর যাঁর বাড়ি হাড়োয়া থানার শালিপুর এলাকায়। এই মহিলা কলকাতা বিমানবন্দরে একটি বেসরকারি বিমান সংস্থায় বিমান সেবিকার কাজ করতেন। সেখানেই আসা যাওয়ার সুবাদে গিয়াসঊদ্দিনের সঙ্গে পরিচয় হয় তার। ঐ যুবক ইমারতি দ্রব্যের ব্যবসা করেন। তরুণীর অভিযোগ প্রথমে প্রেম তারপরে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস। তারপর একাধিকবার ধর্ষণের জেরে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে যান ওই বিমান সেবিকা। এমনকি গিয়াসঊদ্দিন জোর করে তাকে গর্ভপাত করায়। এরপরে যুবক আর বিয়ে করতে রাজি হয় না। যুবতী হাড়োয়া থানায় যুবকের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস, ধর্ষণ ও ভয় দেখিয়ে গর্ভপাত করানোর অভিযোগ করে। রবিবার রাতে কাশিপুর থানার শ্যামনগর গ্রাম থেকে অভিযুক্ত যুবক গিয়াসঊদ্দিন মোল্লাকে গ্রেপ্তার করে হাড়োয়া থানার পুলিশ। ধৃত যুবককে সোমবার বসিরহাট মহকুমা আদালতে তোলা হয়। নির্যাতিতা যুবতী ওই যুবকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। বসিরহাট জেলা হাসপাতালে ঐ তরুণীর মেডিকেল পরীক্ষা হয়। পাশাপাশি বসিরহাট মহকুমা আদালতে ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে জবানবন্দিও দেন নির্যাতিতা। যদিও বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস, ধর্ষণ ও গর্ভপাতের ঘটনা গিয়াসঊদ্দিন অস্বীকার করেছে। সে বলেছে আমার কাছে মোটা অর্থ চেয়েছিল আমি দিতে না পারায় আমাকে ফাঁসানো হয়েছে।

Exit mobile version