খবর

নিজেদের বাঁচাতে নিজেদেরই মিউজিক্যাল ইন্সট্রুমেন্ট বেচলেন শিল্পীরা

p8প্রবীর বোস: করোনা পর্বে কাজ নেই স্থানীয় সঙ্গীত ও যন্ত্র শিল্পীদের।লক ডাউন ও আনলকের সময়ে বন্ধ বিচিত্রা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বন্ধ হোটেল পানশালা। সঙ্গীত ও যন্ত্র বাজানো ছাড়া শিল্পীদের অন্য কোন পেশা না থাকায় বন্ধ রোজগার। শুক্রবার কাজ শ্রীরামপুর নবগ্রামে সঙ্গীত ও যন্ত্র  শিল্পীরা একজোট হয়ে যন্ত্রাংশ বিক্রি করে প্রতিবাদ করেন। শিল্পীদের দাবি কাজ নেই তাই সংসার চলছে না। স্বাস্থ্য বিধি মেনে অনুষ্ঠানের অনুমতি দিক প্রশাসন। মহিলা সঙ্গীত শিল্পীর কথায় করোনা আবহে প্রশাসন বিয়ে বাড়ি বা অনুষ্ঠান বাড়ি গুলিতে স্বাস্থ্য বিধি মেনে পঞ্চাশ জনের ছাড়পত্র দিয়েছে। সেই নিয়মেই শিল্পীদের বিচিত্রা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের অনুমতি দিক। নাহলে উপার্জনহীন হয়ে শিল্পীরা না খেয়ে মরবে। এ দিন প্রতিবাদ স্বরূপ শিল্পীরা তাঁদের সংগীতের নানা যন্ত্রও বিক্রি করে দেন।