খবর

উচ্চমাধ্যমিকে সবোর্চ্চ ৪৯৯, ফল প্রকাশের পরেই যান্ত্রিক ত্রুটির কবলে সংসদের ওয়েবসাইট

18835517_659001637627135_7075236640720880564_nনিজস্ব সংবাদদাতা: ৪ মাস  বাদে প্রকাশ হল রাজ্যের উচ্চ মাধ্যমিউক পরীক্ষার ফলাফল। আজ উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি মহুয়া দাস বিকাল ৩.৩০ মিনিটে সংসদের সভাগৃহে অনুষ্ঠানিক ভাবে এই ফল প্রকাশ করেন। করোনা’র কারণে এই বছর উচ্চমাধ্যমিকের তিন দিনের পরীক্ষা বাতিল হয়ে যায়, তাই সংসদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যে পরীক্ষাগুলি ছাত্র-ছাত্রীরা দিতে পেরেছে সেগুলির মধ্যে যে বিষয়টিতে ওই ছাত্র বা ছাত্রী  সর্বোচ্চ নম্বর পেয়েছে সেই নম্বরই বাকি থাকা পরীক্ষাগুলির নম্বর হিসাবে যুক্ত করা হয়েছে। মহুয়া দাস জানান আগামী ৩১ জুলাই থেকে সারা রাজ্যের মোট ৫২ তো কেন্দ্র থেকে বিদ্যালয়গুলিকে মার্কশিট ও সার্টিফিকেট সংগ্রহ করতে অনুরোধ করা হচ্ছে। উল্লেক্ষ্য এই বছর উচ্চ মাধ্যমিকে ৯০.১৩ শতাংশ পাশের হার যা অতীতের সকল রেকর্ডকে ছাপিয়ে এক ইতিহাস সৃষ্টি করেছে বলে মহুয়া দেবী জানান।এই বছর মোট ৭,৬১,৫৮৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৬,৮০,০৫৭ জন পরীক্ষার্থী কৃতকার্য হয়েছে। এই বছরের উচ্চ মাধ্যমিকের ফলাফলে কোন রূপ মেধা তালিকা সংসদ প্রকাশ করেন নি। তবে মহুয়া দাস জানান, বর্তমান বছর সবোর্চ্চ প্রাপ্তও নম্বর হল ৪৯৯ (৫০০ নম্বরের মধ্যে)। আরও একটি বিষয়ে তিনি আলোকপাত করেন সেটি হল এই বছর  ফলাফল স্কুটিনী বা রিভিউ করতে বগত বছরের হারে ফি নেওয়া হচ্ছে না, এই বছর যথাক্রমে ৫০ ও ৭৫ টাকা লাগবে এই বিষয়ে। অনুষ্ঠানিক ভাবে ফল প্রকাশের কিছু পরেই উচ্চ-মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের ওয়েবসাইট যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে পুরোপুরিই বসে যায় এবং হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রীরা রীতিমত উত্‍কন্ঠায় মধ্যে থাকে, যদিও প্রায় ঘণ্টা দুয়েক পড়ে আবার সচল হয় সংসদের ওয়েবসাইট।