খবর

করোনার থাবা এবার পুরাতন মালদা পৌরসভা এলাকায়

IMG-20200616-WA0021রুহুল আলম, মালদা: পুরসভা এলাকায় প্রথম করোনা সংক্রমণ মিলতেই নড়েচড়ে বসলো পুরাতন মালদা প্রশাসন। কন্টেনমেন্ট জোন ঘোষণা করা সহ আক্রান্তের বাড়ি সিল করল পুরাতন মালদা প্রশাসন।রবিবার প্রথম করোনা আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে এবার পুরাতন মালদা পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ড সামুন্ডীপাড়া এলাকায়। করোনার খোঁজ মিলতেই এলাকায় ছড়িয়েছে আতঙ্ক৷ শুনসান হয়েছে এলাকার রাস্তাঘাট৷ জানা গেছে, ওই ব্যক্তি শ্রমিকের কাজে গিয়েছিলেন গুজরাট। সেখান থেকে প্রায় ১৫ দিন আগে বাড়ি আসে। এবং ঘন্টাদুয়েক সে বাড়িতে পরিবারের সাথে কাটায়, পরবর্তীতে মালদা থানার পুলিশের তৎপরতায় তাকে  পৌরসভার কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে পাঠানো হয়। গত কয়েকদিন আগে পরিযায়ী শ্রমিকদের লালারসের নমুনা পরীক্ষা করা হলে রবিবার স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে রিপোর্ট আসে ওই শ্রমিকের দেহে করোনা ভাইরাস রয়েছে। এই খবর পাওয়ার পর গোটা পৌরসভা এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে মালদা থানার পুলিশ। তাই সোমবার রাতেই ওই এলাকাকে কনটেন্টমেন্ট জোন ঘোষণা করার সাথে সাথে আক্রান্তের বাড়ি সিল করেছে প্রশাসন৷পুরাতন মালদা পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডের এক বাসিন্দার শরীরে করোনার সংক্রমণ ধরা পড়ে৷ রাতেই ওই ব্যক্তিকে পুরাতন মালদার কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে৷ ওই এলাকায় কনটেন্টমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করে এলাকাকে বাঁশ দিয়ে ঘিরে দেওয়া হয়েছে৷ মালদা থানার পুলিশ ওই এলাকায় মাইকিং করে এলাকাবাসীকে সতর্ক করেন৷স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে৷ আক্রান্ত ব্যক্তি বাড়ি ফেরার পরে এলাকার বেশ কিছু লোকের সংস্পর্শে এসেছে৷ প্রশাসনের উচিত আক্রান্ত ব্যক্তির সংল্পর্শে আসা সকলকে চিহ্নিত করে কোরোনা পরীক্ষা করা৷ রাতেই প্রশাসনের লোকজন এসে আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়ি সিল করে দিয়েছে৷ বর্তমানে গোটা এলাকা নিস্তব্ধ৷ ভয়ে কেউ বাড়ি থেকে বেরোচ্ছে না৷