উত্‍সব

নবাবের দেশের প্রাচীন ঐতিহ্য দর্শন

murshidabad-12সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়: মুর্শিদাবাদ নামটা শুনলেই শিহরণ লাগে, মনে পড়ে যায় ইতিহাসের সেই সব দিনগুলির কথা। চোখ বুঝলেই দেখতে পাওয়া যায় নবাবী আমলের সেই দিনগুলো, যার স্বাক্ষর আজও আমরা বহন করে চলেছি। ঐতিহাসিক এই শহরের ইতিকথায মগ্ন হয় ছেলে-বুড়ো সকলেই। মুর্শিদাবাদ শব্দটাই আমাদের কাছে পরাধীনতার, স্বাধীনতার, বিশ্বাসঘতকতার এক জ্বলন্ত প্রতিচ্ছবি। মুর্শিদাবাদ মানেই সিরাজের কথা, মুর্শিদাবাদ বলতেই ভেসে ওঠে হাজারদুয়ারী, জাহানকোষা কামান, মুর্শিদাবাদ কথার অর্থ মুর্শিদকুলি খাঁ’র কাটরা মসজিদ, লালবাগ, হীরাঝিল, মতিঝিল, কাঠগোলা প্রাসাদ সহ আরও নানান ঐতিহাসিক দলিল। ইতিহাস ভালবাসেন এমন মানুষ আর ইতিহাসে আসক্তি নেই এমন মানুষরাও মুর্শিদাবাদ নামটা শুনলেই বেরিয়ে পড়তে চান সেই শহরে, ইতিহাস যাঁর আনাচে-কানাচে, অলিতে-গলিতে। এই মুর্শিদাবাদেই আবারও বসতে চলেছে মুর্শিদাবাদ হেরিটেজ উত্‍সব ২০২০, অবিভক্ত বাংলার রাজধানী ইতিহাসের খনি মুর্শিদাবাদের ঐতিহ্যমণ্ডিত নবরূপে সজ্জিত কাঠগোলা প্রাসাদে আগামী ২৪ জানুয়ারী থেকে ২৬ জানুয়ারী।murshidabad সম্প্রতি কলকাতা প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে এই উত্‍সবের কর্মকর্তাদের কাছ থেকে জানা গেল এই উত্‍সবের অন্যতম অঙ্গ হিসাবে থাকছে ইতিহাসের এই শহরের নানান প্রান্তে ঘুরে দেখার সুযোগ, সঙ্গে থাকছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ভাগীরথীর বুকে আতশবাজী প্রদর্শন।