উত্তর সম্পাদকীয়

ভাবার সময় উপস্থিত

doctorপথিক মিত্রঃ সামাজিক মাধ্যমে একটা বিষয় ইতিমধ্যে বিশেষ স্থান করে নিয়েছে,  সেটি  হলো নতুন আইন আসতে চলেছে ডাক্তারদের সুরক্ষার জন্য,  যে আইনে কোনো রোগীর পরিজন কোনো ডাক্তারের গায়ে হাত দিলে তার কম করে দশ বছরের জেল ও পাঁচ লক্ষ টাকা জরিমানা ধার্য্য হতে চলেছে।  নিঃসন্দেহে সাধু উদ্যোগ,  স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় সঠিক অবস্থা বজায় রাখতে এবং ডাক্তারদের নিরাপত্তা দিতে সঠিক পদক্ষেপ বলেই মনে করছেন আম জনতা,  তার সঙ্গে সঙ্গে একটা প্রশ্নও উঁকি দিতে শুরু করেছে। যদি কোনও ডাক্তারদের গাফিলতিতে কোনো রোগীর মৃত্যু পর্যন্ত ঘটে,  সেই সকল ডাক্তারদের জন্য কি কোনো শাস্তির ব্যবস্থা লাঘু করা হবে,  নাকি তাঁদের ভগবানের আসনেই বসিয়ে রেখে পুজো করতে হবে সাধারণ মানুষদের। আজ এই প্রশ্ন ওঠা অস্বাভাবিক কি?  মানা যায় ডাক্তাররা অমানুষিক পরিশ্রম করে নিজেদের জীবন বিপন্ন করে একজন মুমূর্ষু রোগীকে বাঁচানোর আপ্রাণ চেষ্টা করেন, তবুও কোনো কোনো ক্ষেত্রে তাঁদের সামান্যতম গাফিলতিতে আমরা আমাদের প্রিয়জনকে হারাতে বাধ্য হই। এছাড়াও বেশ কিছু ক্ষেত্রে রোগীর পরিবারের প্রতি কিছু ডাক্তারদের ব্যবহার সত্যিই দুর্ভাগ্যজনক।  মাঝে মাঝে তাঁদের ডাক্তার না বলে অন্য বিশেষ পেশায় নিযুক্ত ব্যক্তিদের সঙ্গে তুলনা করা হয়, অতীতে এই রকম বহু নিদর্শন আমরা দেখেছি,  এর সঙ্গে সঙ্গে যে সকল ডাক্তারবাবুরা সরকারি স্বাস্থ্য পরিষেবায় যুক্ত থাকার সঙ্গে সঙ্গে নিজস্ব চেম্বার চালু রাখছেন বা বেসরকারি হাসপাতালে পরিষেবা দিতে ব্যস্ত থাকেন তাঁদের ক্ষেত্রে কি ব্যবস্থা অবলম্বন করতে চলেছে স্বাস্থ্য দপ্তর এ প্রশ্ন ওঠা কি খুব অস্বাভাবিক?  অপরদিকে সকল পেশার নিযুক্ত মানুষরা তাঁদের পেশার সেবা প্রদান করে তাঁদের কাছ থেকে যে সকল ব্যক্তি পরিষেবা নিচ্ছেন তাঁদেরকে নিদির্ষ্ট বিল প্রদান করেন,  তবে, বিশেষ করে ডাক্তারি পেশায় নিযুক্তরা কেন তাঁদের রোগীদের পরিজনদের তাঁদের ফি’র প্রমান স্বরূপ কোনো বিল প্রদান করবেন না?  আজ  যদি সমবেত জনগন দাবী তোলেন সকল ডাক্তারদের যাঁরা নিজেরা প্রাকটিস করছেন বেসরকারি ভাবে,  তাঁদের সকলকেই তাঁদের ফি এর প্রমান স্বরূপ বিল প্রদান করতে হবে,  তখন? ইতিমধ্যেই এই বিষয়ে সামাজিকও মাধ্যমে দাবীও ওঠাতে শুরু করেছেন নেটিজেনরা। আসলে আমাদের চোখে ডাক্তারী এমন এক পেশা, যাঁদের আমরা সেই শিশুকাল থেকেই সমাজবন্ধু হিসাবে সমাজে বিশিষ্ট স্থান দিয়ে থাকি,  এবং আজও তাঁদের যথেষ্টই সম্ভ্রমের সঙ্গে শ্রদ্ধা করেন আপামর জনগণ, তাঁরা অর্থাত্‍ সেই ভগবানতুল্য ডাক্তার মহলে কিছু ডাক্তার আজ তাঁদের ব্যবহার, কার্যকলাপের দ্বারা সকলের কাছে এই মহান পেশাটিকে রাস্তায় নামিয়ে এনেছেন, আর তার ফল ভোগ করতে হচ্ছে সকল ডাক্তার সমাজকে।