খবর

শুরু হয়ে গেল প্রানের উত্‍সব-কলকাতা বইমেলা

KOLKATA-BOOK-FAIR-INAUGURATION-(2).jpgনিজস্ব সংবাদদাতাঃ শুরু হয়ে গেল ৪৩ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলার আসর। এবারে কলকাতা বইমেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিধান্যগরের সেন্ট্রাল পার্কে। মেল চলবে  চলবে ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বর্তমান বছরের মেলার ফোকাল থিম কান্ট্রি গুয়াতেমালার বিশিষ্ট সাহিত্যিক এউদা মোরলেস।রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর উপস্থিতিতে গুয়াতেমালার সাহিত্যিক কলকাতা বইমেলার চিরাচরিত প্রথা মেন ঘণ্টা বাজিয়ে উদ্বোধন করেন ৪৩ তম আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলার। উদ্বোধনী ভাষণে মুখ্যমন্ত্রী বলেন বই আমাদের মনের, বই আমাদের প্রানের। তিনি বলেন বই না থাকলে আমরা সভ্য মানুষ হিসাবে নিজেদের গড়ে তুলতে সক্ষম হব না। তিনি আরও বলেন একমাত্র বইই পারে সকলেকে জাগ্রত করতে, তাদের হৃদয়কে জাগিয়ে তুলে তাদের জীবনে স্বপনের ভোর নিয়ে আসে। বই এর মধ্য দিয়েই আমরা শিক্ষিত হই, আমরা আমাদের সুপ্রাচীন সভ্যতা, কৃষ্টি ও নানান মনিষীদের সম্পর্কে বিস্তারিত জ্ঞান লাভ করি। তিনি সকলকে আরও বেশি করে বই পড়ার আহ্বান জানান। তিনি বলেন বই আমাদের অতি আদরের, ভালোবাসার।

গতবারের বইমেলার কয়েকটি বিক্ষিপ্ত ঘটনা যাতে বর্তমান বছরে না ঘটে তার জন্য তিনি সাবধান করে সকলের উদ্দেশ্যে বলেন দুষ্টুরা, হিংসুকরত চিরকালই দুষ্টুমি কর্ণবে বা হিংসা করবে। তবে তিনি এটাও বলেন আমাদের সকলের দেহস উচিত মানুষের মিলনের এমন মহান উত্‍সবে যেন দুষ্টুরা কোনরকম দুষ্টুমি করতে না পারে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও বলেন সারা বিশ্বে কোনও বই মেলায় এত দর্শক সমাগম হন না, গতবছর এই মেলায় ২.২ মিলিয়ন দর্শক এসেছিলেন। এই বছর আরও বেশি সংখ্যায় জনসমাগম হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট চিত্রশিল্পী শুভাপ্রসন্ন, বইমেলা কমিটির পক্ষে পাবলিশার্স অ্যান্ড বুকসেলার্স গিল্ডের সাধারণ সম্পাদক ত্রিদিব চট্টোপাধ্যায়, পাবলিশার্স অ্যান্ড বুকসেলার্স গিল্ডের অধিকর্তা সুধাংশু দে, বিশিষ্ট সাহিত্যিক শংকর সহ বিশিষ্ট অতিথিবর্গ। এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আঁকা ছবি নিয়ে একটি ক্যালেণ্ডার ও ওনার লেখা সাতটি বই এর অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়। উদ্বোধন হয় সাংবাদিক ও বিধায়ক প্রবীর ঘোষালের লেখা বইও। (ছবি-সন্তু পাল)

gorumara

banner-advt-amitabha

advt vromonolife

achiever-advt