বিজ্ঞাপন

স্বপ্নকে সফল করলেন কর্মদ্যোগী নারী

achiever advtsampleপায়ের তলায় সরষে। এই কথাটাকে আক্ষরিক অর্থে স্বার্থক করে তুলে নিজের স্বপ্নকে সফল করে তুলেছেন এক নারী। আর তিনি অন্যদেরও তাঁর এই স্বপ্নের ভাগীদার করতে আজ নিজেই গড়ে তুলেছেন আস্ত একটি ভ্রমণ সংস্থা। ঘুরে বেড়ানোর নেশাকে পেশায় রূপান্তরিত করা এই মহিলা কিন্তু নিজের কর্মজীবন শুরু করেছিলেন বেসরকারী ব্যাঙ্কের কর্মচারী হিসাবে। মৌমিতা সেন অর্থাত্‍ এতক্ষণ যাঁর কথা বলছিলাম তিনি ভ্রমণকে শুধুমাত্র ব্যবসা হিসাবে দেখেন না, যেহেতু ভ্রমণ তাঁর নেশা, আর এই নেশা থেকেই তাঁর প্যাশন তাঁকে আজ একজন সফল কর্মদ্যোগী হিসাবে স্থান করে নিতে সাহায্য করেছে। বিগত কয়েক বছর ধরে মৌমিতা রত আছেন ভ্রমণ পিপাসু পর্যটকদের ভ্রমণের পিপাসা পরিতৃপ্ত করতে। তিনি মূলত নিজেকে তৈরি করে তুলেছেন অন্যতম একজন প্রকৃত ভ্রমণ কাণ্ডারী হিসাবে। আজ মৌমিতার ঝুলিতে রয়েছে তাঁর সঙ্গে ঘুরে বেড়ানো অসংখ্য মানুষের শুভকামনা আর বুকভরা আশীর্বাদ। তাঁর স্বপ্নের সংস্থা এচিভার টুরিজম আজ পশ্চিমবঙ্গের বেসরকারি পর্যটন সংস্থাগুলির মধ্যে অন্যতম এক সংস্থা যারা ভারতের উত্তর প্রান্তে ও দক্ষিণ প্রান্তের কালাপানি খ্যাত আন্দামানে নিজেদের আধিপত্য বিস্তারে সক্ষম হযেছে। ভূস্বর্গ কাশ্মীর, হিমাচল প্রদেশ, কারগিল সহ লে-লাদাখ, সমগ্র উত্তর ভারত, সিকিম, সহ বিদেশের মাটিতেও পা রেখেছে আজ মৌমিতার স্বপ্নের সওদাগর ‘এচিভার’। তাঁর সঙ্গে ঘুরে আসা বিভিন্ন মানুষজনের পর্যটনের আজ ভরসার অন্যতম নাম ‘এচিভার’। মৌমিতার কথায়, কোন জায়গা সম্পর্কে সঠিক তথ্য সংগ্রহ করে এবং পর্যটকদের আন্তরিকতার সঙ্গে একাত্ম হয়ে ভ্রমণের কটাদিন তিনি নিজেকে মিশিয়ে দেন পর্যটকদের মাঝে। পর্যটন ব্যবসা মানেই শুধুমাত্র লোকদের বোকা বানিয়ে নিজের পকেট বোঝাই করা নয় তা তিনি অন্তর থেকে উপলব্ধি করেন, তাই তিনি কর্মচারীদের ওপর ভরসা না করে নিজে প্রতিটা ভ্রমণ প্যাকেজে উপস্থিত থাকতে সচেষ্ট থাকেন তাঁর সঙ্গে ঘুরতে যাওয়া সকল পর্যটকদের সঠিক পরিষেবা দেবার লক্ষে। পর্যটকদের সঠিক ভাবে পরিষেবা প্রদান করে, বিশেষ করে মহিলা-বৃদ্ধ ও বৃদ্ধাদের যথেষ্ট যত্ন সহকারে ঘুরতে বিশেষ ব্যবস্থা করেন তাঁরা, বলে জানলেন মৌমিতা। মৌমিতার স্বপ্ন তাঁর মানসকন্যা ‘এচিভার’ শুধুমাত্র পর্যটকদের সঠিকভাবে, সঠিক মূল্যেপরিষেবা প্রদান করে আগামীতে মহীরুহতে পর্যবসিত হবেই।

মৌমিতার ‘এচিভার টুরিজম’ এর সঙ্গে যে সকল পর্যটকরা ঘুরে এসেছেন আজ তাঁরা অধিকাংশই তাঁর নিকট আত্মীয় হয়ে উঠেছেন। আর এনাদের আবদারে ‘এচিভার’ আগামীতে নিয়ে এসেছে পর্যটন সংক্রান্ত নানান পরিষেবা। যেমন বিদেশ ভ্রমণের জন্য পাসপোর্ট ও ভিসার সহায়তা তাঁর অন্যতম। ‘এচিভার’ এর সঙ্গে একবার না ঘুরলে ভ্রমণের সঠিক রূপ-রস কোনদিনই উপলব্ধি করা সম্ভব হবে না। কাজেই চিন্তা না করে আপনাদের সঙ্গী-সাথী নিয়ে আগামীরে ভ্রমণের পরিকল্পনা করতে যোগাযোগ করুন মৌমিতার সঙ্গে এই নাম্বারে ৯৪৩২২৭৫২৫১, ৯৮৩১১২৫২৫১।