খবর

অসংক্রামক ব্যাধি নিয়ন্ত্রণে নিয়মাবলী শীঘ্রই

noncc.jpgনিজস্ব সংবাদদাতা: অসংক্রামক ব্যাধি বেড়ে যাওয়ায় ভারতে মোট ব্যাধির পরিমাণ বেড়েছে অনেকটাই। অতীতে দেশের বহু জেলা হাসপাতাল অসংক্রামক ব্যাধির ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছিল। পাশাপাশি, জোর দেওয়া হয় প্রজনন সংক্রান্ত বিষয়গুলি এবং শিশু স্বাস্থ্যে। এর ফলে, অসংক্রামক ব্যাধি নিয়ন্ত্রণ করার মতো ব্যবস্থার সেরকম কোনও বিকাশ ঘটেনি। অসংক্রামক ব্যাধি, বিশেষ করে হৃদ্‌রোগ, স্ট্রোক, ক্যানসার, ডায়াবেটিস, বক্ষব্যাধি, হরমোনের জটিলতা, ফুসফুসের সমস্যা, কিডনি রোগ সহ আঘাতজনিত রোগ মারাত্মক স্বাস্থ্য সমস্যা হিসেবে দেখা দিয়েছে। বিশ্বের প্রতি তিনটি মৃত্যুর একটি হলো অসংক্রামক ব্যাধিতে মৃত্যু। এটি একটি দীর্ঘস্থায়ী ও ক্রমশ সম্প্রসারণশীল ব্যাধি। প্রসঙ্গত, নীতি আয়োগ এবং স্বাস্থ্য এবং পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক বিভিন্ন রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগের সঙ্গে একযোগে কাজ করার প্রয়াস চালাচ্ছে। পাশাপাশি, স্বাস্থ্য সেবা শিল্পের সঙ্গে জড়িত প্রতিনিধিরাও প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে মডেল কনসেশেনেয়ার চুক্তি সৃষ্টির জন্য যাতে, অসংক্রামক ব্যাধি নিয়ন্ত্রণ করা যায় বা এর সঠিক চিকিৎসা চালানো যায় জেলা হাসপাতাল এবং টু-টিয়ার ও থ্রি-টিয়ার মহানগরগুলিতে। এ সংক্রান্ত নিয়মাবলী ঘোষণা করবেন নীতি আয়োগের সদস্য ডাঃ ভি কে পাল, নীতি আয়োগের মুখ্য কার্যনির্বাহী আধিকারিক শ্রী অমিতাভ কান্ত এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের সচিব শ্রীমটি প্রীতি সুদান। (ছবি সৌজন্যে-গুগুল, সংবাদসুত্র-পি.আই.বি.)