খবর

স্কুল পড়ুয়াদের চরকা চালানো শেখানো

H2018101055853নিজস্ব সংবাদদাতা, কলকাতা, ছবি সৌজন্যে পিআইবি: ভারত  সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের প্রকাশনা বিভাগ কলকাতার দপ্তরে মহাত্মার ১৫০ বছর  শীর্ষক এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ১০ অক্টোবর। অনুষ্ঠানে মহাত্মা গান্ধী গ্রামোদ্যোগ সেবা সংস্হানের সদস্যরা উপস্থিত স্কুল পড়ুয়াদের চরকা চালানো শেখান। প্রসঙ্গত, খাদি ক্ষেত্রের ওপর দেশের বহু দরিদ্র কৃষক ও তাঁতিরা নির্ভর করে থাকেন। তাই খাদির ব্যবহার বাড়লে তাঁরা উপকৃত হবেন বলে ইতিপূর্বে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন। ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামে খাদি ও চরকার একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল। মহাত্মা গান্ধী গ্রামোদ্যোগ সেবা সংস্হান একটি অলাভজনক সংস্হা যারা চরকার ব্যবহার ও দেশীয় তুলো থেকে বস্ত্র তৈরির বিষয়ে সচেতনতা প্রসারের কাজ করে থাকে। সংস্হার পক্ষে অরুপ রক্ষিত জানান,  মহারাষ্ট্র ও কর্ণাটকে বহু তুলো চাষি বিটি তুলোর পরিবর্তে জৈব তুলোর চাষ করে থাকেন। জৈব তুলোর চাষে জলের প্রয়োজন পড়ে কম এবং উন্নতমানের বস্ত্র তৈরি করাও সম্ভব হয়। বর্ধমানের বেশ কয়েকজন তাঁতি ওয়ার্ধা-য় বোনা সুতো দিয়ে খাদি বস্ত্র তৈরি করেন বলে সংস্হার তরফে জানানো হয়। এরজন্য মহারাষ্ট্রের আকোলা জেলার কৃষকদের কাছ থেকে জৈব তুলো আমদানি করা হয়। অরুপ রক্ষিত আরও জানান, তাঁরা মূলত খাদি সম্বন্ধে জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করতে দেশের বিভিন্ন স্হানে প্রদর্শনী করে থাকেন। তিনি জানান যে, তথ্যপ্রযুক্তি ও বহুজাতিক সংস্হাগুলির কর্মীদেরও তারা  চরকা চালানোর প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকেন। অনুষ্ঠানে উপস্হিত ছিলেন প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরোর যুগ্ম অধিকর্তা শ্রী চিন্ময় চক্রবর্তী ও তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রকের একাধিক উচ্চপদস্হ আধিকারিকরা। (সংবাদ সূত্র-পিআইবি)