পেট পুজো

পুজোর দিনগুলি জমে উঠুক জিভে জলআনা খাবারের সঙ্গে

 স্বরূপম চক্রবর্তী, কলকাতা, ছবি-নিজস্ব: বাঙালির শ্রেষ্ঠ উত্‍সব শারদোত্‍সব। এই উত্‍সবকে কেন্দ্র করে মেতে ওঠে আপামর বাঙালি। সাধ ও সাধ্যের সংমিশ্রণ ঘটিয়ে পুজোর কটা দিন সকল দুঃখ ভুলে সকলে আপন খুশিতে একাত্ম হয়ে ওঠে। উত্‍সব মানেই নতুন পোষাক, প্যান্ডেল হপিং, আড্ডা, ঘোরা, আর কব্জি ডুবিয়ে খাওয়া।
বাঙালির রসনার তৃপ্তিতে প্রতিবারের মত এবারেও কলকাতার রেস্তোরাগুলি সাজিয়ে তুলেছে নিজেদের। সকলেই নিজ নিজ স্টাইলে তাদের খাদ্যসম্ভার নিয়ে দরবারে হাজির। আমরাও খুঁজতে বেরিয়ে পড়েছিলাম কলকাতার বেশ কয়েকটি অভিজাত রেস্তোরায়। যারা পুজোর দিনগুলিকে আরও রঙিন করে তুলতে রীতিমত প্রস্তুত।

আমরা প্রথমে হাজির লবণহ্রদ এলাকার সেক্টর পাঁচে’র পোর হাউসে। সল্টলেকের এই রেস্তোরা উত্‍সব উপলক্ষে নিয়ে এসেছে ফেস্টিভ বুফে’র। যা মিলবে অক্টোবরের ১৬, ১৭ ও ১৮ তারিখেই। সল্টলেক এলাকায় প্রতিমা দর্শনের সঙ্গে সঙ্গে রসনার পরিতৃপ্তিতে দ্বি-প্রাহরিক আহারটাও সেরে নিতে পারেন সপরিবারে মাত্র ৫৭৯ টাকায়। এদের মেনুতে রয়েছে একাধিক জিভে জল আনা সুস্বাদু আমিষ ও নিরামিষ খাবারের নানান পদ। থাকছে ডালবড়া, ভেজ গ্রিল পিত্‍জ্জা, চিকেন সুপ্রীম, চিকেন পপক্রন, চিলি ফিশ, প্যাঙ্কো ফিশ ফিঙ্গার সঙ্গে থাকছে নুডুলস, ভেজ মাঞ্চুরিয়ান, পনির বাটার মশালা, ডাল মাখানি, ভেজ বিরিয়ানি। এছাড়াও কচি পাঁঠার ঝোল, চিকেন কষা, ফিশ কাসুন্দি, গ্রিন স্যালাড, চাটনি, পাপড়, আইসক্রিম, গুলাব জামুন, প্যাস্ট্রি। কাজেই নো চিন্তা ডু ফুর্তি, চলে যান পুজোর দিনগুলিতে লবনহ্রদের পোর হাউসে।

মধ্য কলকাতার সেক্সপিয়ার সরণির ‘অ্যাস্টর হোটেল’ অক্টোবরের ১৪ থেকে ১৯ ‘কাবাব-এ-কিউ’ তে একঝাঁক বাঙালি খাবার নিয়ে তৈরি পুজোর দিনগুলিতে সকলের মনোরঞ্জনের জন্য মাত্র ১৬৪৯ টাকায়। দুপুরে আর রাতের জন্য অ্যাস্টর আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছে লেবু ধনেপাতার সূপ, চিংড়ি মালাইকারী, মাটির হাড়িতে মাংস, ঢাকাই মুরগির রোস্ট, আম-আদা-সর্ষে সহযোগে পমফ্রেট, নবাবী মাংসর টিকিয়া, পিয়াজ-লঙ্কা যোগে মোরলা মাছের চচ্চড়ি। এর সঙ্গে থাকছে মুর্গ চকোরী কাবাব, মাটন শিক কাবাব, গন্ধরাজ ফিশ রোল পালক, চানা ডালের কাবাব, কাশ্মীরি চপ, পেঁয়াজ পোস্ত, নারকোল বড়া। নিরামিষ ভোজীদেরও নিরাশ করছে না অ্যাস্টর। নিরামিষ পদের মধ্যে থাকছে ছানার কোপ্তা কারি, কষা আলু দম, ফুলকফির রোস্ট, এঁচোড় কালিয়া, মোচার ঘন্ট, হিং দিয়ে কলি ছোলার ডাল। আরও থাকছে ভাজা-ভাজির বিশাল সম্ভার-যেমন মশালা বেগুনি, কুমড়ো ভাজা, পটোল ভাজা, কাঁকরোল ভাজা, করলা ভাজা, ঝুড়ি আলু ভাজা। সঙ্গে থাকছে নানান চাট, নানা রকম চাটনি, ও একঝাঁক মিষ্টি। সঙ্গে উপরি পাওনা হিসাবে থাকছে মনোরঞ্জনের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা।

মধ্য কলকাতারই ক্যামাক স্ট্রীটের অন্যতম অভিজাত রেস্তোরা ‘কাফে ৪/১’ দুর্গাপুজোর দিনগুলি সহ অক্টোবর মাসভর আয়োজন করেছে মেক্সিক্যান খাবারের সুবিশাল সম্ভার নিয়ে মেক্সিক্যান ফুড ফেস্টিভ্যালের। মাত্র ৮০০ টাকায় এখানে মিলবে জিভে জল আনা এমপ্যানাডাস, ট্যাকো, টর্তিলা সূপ প্যাটার, অ্যাভোকেডোকোল্ড সূপ, চিমিচাংরা বুরটো রোল, মোলে পালবানো ও সপাইপিলা মেক্সিকানা।
কাজেই কিসের চিন্তা? আসন্ন পুজোর দিনগুলো পরিবার-পরিজন-বন্ধু-বান্ধব বা নিজের প্রিয়জনকে নিয়ে জমিয়ে কাটুক আর সঙ্গে অতি অবশ্যই উদর দেবতার সন্তুষ্টিতে থাকুক এই সকল রেস্তোরার জিভে জল আনা সুস্বাদু খাবারের নানান পদ।