খবর

আম্ফান নিয়ে চূড়ান্ত সতর্কতা সুন্দরবন এলাকা জুড়ে

ampan-4সৌমাভ মণ্ডল, উত্তর ২৪ পরগণা: বসিরহাট মহকুমার সুন্দরবনের সন্দেশখালি ১ ও ২নম্বর, হাসনাবাদ, হিঙ্গলগঞ্জ ও মিনাখাঁ এই পাঁচটি ব্লকে কমলা সর্তকতা জারি করা হয়েছে। প্রতিটি ব্লকে ৩০০ মেট্রিক টন চাল মজুদ করা হয়েছে। পাশাপাশি ৬০০০০ ত্রিপলের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া ১ লক্ষ জলের পাউচ মজুদ করা হয়েছে। প্রায় ছয় হাজার মানুষকে ত্রাণ শিবিরে নিয়ে আসা হয়েছে। যেহেতু করোনা মহামারী চলছে তাদের জন্য ৬০০০ মাস্ক এব়ং এনডিআরএফ কর্মীদের জন্য ১০০০ পিপিই কিট ও পর্যাপ্ত স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই মহকুমার ১২০টি ত্রাণ শিবিরকে সচল করা হয়েছে। পাশাপাশি সরকারি ৫০০ পাকা বাড়িকে চিহ্নিত করে সেখানে দুর্গত মানুষকে রাখার চেষ্টা করা হবে। এছাড়া প্রতিটি ব্লকের নদীপথে একটি করে পেট্রোলিং বোটের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেইসঙ্গে মাইকিং প্রচার চলছে। সব‌মিলিয়ে আম্ফান নিয়ে চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিয়েছে বসিরহাটের সুন্দরবনের এই ব্লক গুলি।

এছাড়াও সারা রাজ্যে মোতায়েন করা হয়েছে এনডিআরএফ-এর ৪০ টি দলকে। শিলিগুড়িতে একটি দলকে রিজার্ভে রাখা হয়েছে। উলুবেড়িয়া, হাসনাবাদ, ভাঙড়, ধামাখালি, আরামবাগ, মিনিখা, হিঙ্গলগঞ্জ. বাসন্তী, পাথরপ্রতীমা, নামখানা, সাগদ্বীপ, কাঁথি, নন্দীগ্রামে একটি করে দলকে রাখা হয়েছে। এছাড়াও, দিঘা, কাকদ্বীপে দুটি করে ও রাজারহাটে ৪ টি দলেকে মোতায়েন করা হয়েছে।