Site icon Sambad Pratikhan

অপেক্ষা আরও একটি বছরের

Advertisements

অবশেষে অপেক্ষা আরও একটি বছরের। এই একটা সপ্তাহের দিকে তাকিয়ে থাকে হুগলি জেলার রিষড়া শহরের আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা। আসলে বছরের ওই সময়টাতেই রিষড়া মেতে ওঠে, উদ্বেলিত হয়ে সকলের সঙ্গে সকলে মিলে একাত্ম হয়ে উঠে ব্রতী হয় দেবী জগদ্ধাত্রী’র আরাধনা। আর এ কথা বলা প্রাসঙ্গিকও আজ রিষড়া’র জগদ্ধাত্রী পূজা সারা রাজ্যের মধ্যে চন্দননগরের পরেই স্থান করে নিয়েছে তার গুণগত মান, কারিগরী ও শিল্প সুষমার অপরূপ মেলবন্ধনে। নানা রঙের নানান শিল্পের নিদর্শন দাগ রেখে যায় বছরভর। নিরঞ্জনের  পর থেকেই শুরু হয়ে যায় আগামী বছরের ভাবনা। এই বছরও হুগলি জেলার সুপ্রাচীন এই শিল্পাঞ্চলের মানুষ খুশির আনন্দে জগদ্ধাত্রী মায়ের আরাধনা মেতে উঠেছিলেন গত ৬ নভেম্বর থেকে। যদিও প্রকৃতির করাল হাতছানি বুলবুলের প্রকোপে উত্‍সবের আনন্দ কিছুটা হলেঅম্লান হয়ে পড়েছিল।

তবে সমগ্র রিষড়াবাসীর ও রিষড়া’র সকল পূজা কমিটি গুলির আবেদনে সাড়া দিয়ে এখানকার মানবিক প্রধান নাগরিক রিষড়া পুরসভার পুরপ্রধান বিজয় সাগর মিশ্র অনুরোধ করেন শ্রীরামপুর লোকসভার সংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে। কল্যাণবাবুর অনুরোধে রাজ্যের মা-মাটি-মানুষের সরকারের প্রধান মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই বছর রিষড়া’র জগদ্ধাত্রী উত্‍সবের বাড়তি একটি দিনে সীলমোহর লাগান। রিষড়া’র এই জগদ্ধাত্রী উত্‍সবকে কেন্দ্র করে আয়োজন করা হয় নানা অনুষ্ঠানের। কাজেই একথা সহজেই অনুমেয় সাংস্কৃতিক, কারিগরী ও শিল্পের এক অনন্য মেলবন্ধন এই বছরও লক্ষ্য করা গেছিল রিষড়ায়।

সংবাদ প্রতিখন গত বছর থেকে রিষড়ার এই মাত্রই আরাধনা কে কেন্দ্র করে আয়োজন করে চলে সেরা পুজোর সন্ধানে শীর্ষক এক ভিন্নধর্মী জগদ্ধাত্রী সম্মান।

এই বছর সংবাদ প্রতিখনের পক্ষ থেকে সেরার সেরা জগদ্ধাত্রী সম্মান সেরা পুজোর সন্ধানের সেরার সেরা পুজোর শিরোপা জিতে নেন রিষড়া পশ্চিমপাড়ের নিউ তরুণ দল। দ্বিতীয় সেরার সেরা বিবেচিত হয় রিষড়া রবীন্দ্র সংঘ, তৃতীয় সেরার সেরা পুজো হিসাবে বিচারকদের মন জয় করে নেয় কোরাস, এছাড়াও বাকি ৮ টি বিভাগে সেরার সেরা হয় রিষড়া নিউ পার্ক তরুণ দল, নবচেতনা, পার্ক সম্মিলনী, ৭২এর আমরা, বাগপাড়া উদয়ন সংঘ, ঝংকার, নবরুণ সংঘ, সিমলা সাতঘরা মিত্র সংঘ। সংবাদ প্রতিখণ এই বছর মোট সেরার সেরা প্রথম, দ্বিতীয় তৃতীয় সহ  আরও ৮টি বিভাগে সেরার সেরা পুজো নির্বাচিত করেন।

সংবাদ প্রতিখনের এই সম্মান প্রতিযোগিতায় বিচারক ছিলেন বিশিষ্ট লেখিকা ও কবি সুব্রতা বন্দ্যোপাধ্যায়, রূপ বিশেষজ্ঞা ও সমাজকর্মী শান্তা গোস্বামী, অভিনেতা অর্ণব বন্দ্যোপাধ্যায়, পুরুষ আন্দোলনের অন্যতম প্রধান মুখ গৌরব রায় এবং ম্যানেজমেণ্ট বিশেষজ্ঞ তথা লেখক ডঃ রুদ্ররূপ গুপ্ত। এছাড়াও এদিনের বিচার পর্বে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট বাচিক শিল্পী ও অভিনেতা অভিজিত্‍ ব্যানার্জী, চিত্র সাংবাদিক ও সমাজকর্মী গৌতম মুখোপাধ্যায়, সমাজকর্মী সোনালী দাস, সংবাদ প্রতিখনের কারিগরী সম্পাদিকা দিপান্বীতা দাস ও প্রধান সম্পাদক স্বরূপম চক্রবর্তী। সংবাদ প্রতিখনের এই বছরের সেরার সেরা জগদ্ধাত্রী সম্মানের প্রধান সহযোগী ছিল পুরুষকথা পত্রিকা ও মহিন্দ্রা কোম্পানীর পক্ষ থেকে আর্নেষ্টা ই ভেইকেলস এবং চেতনা সমাজসেবী সংস্থা।  উল্লেখযোগ্য মিডিয়া সহযোগী ছিলেন বেঙ্গলস লাইভ ২৪X৭ ও নিউজ এক্সপ্রেস টাইমস।

Exit mobile version