Uncategorized

তিস্তা-রঙ্গিত টুরিজম ফেস্টিভ্যাল

চিত্র: সংগৃহীত

১০৪ দিনের বন্ধের অশান্ত পরিবেশ থেকে পাহাড়ের রাণী দার্জিলিং এখন মুক্তাঞ্চল। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পর্যটনের অন্যতম আকর্ষণ দার্জিলিং। এই মূহুর্তে দার্জিলিং স্বাগত জানাচ্ছে দেশী-বিদেশী সকল পর্যটকদের নিশ্চিন্তে-নিরাপদে দার্জিলিং ভ্রমণে। শীতের মরশুমে এখানকার পর্যটনের বিকাশে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পর্যটন দপ্তর ও গোর্খাল্যাণ্ড টেরিটোরিয়াল অ্যাডমিনিস্টেশন যৌথভাবে আয়োজন করেছে ৫ দিনের এক সুবিশাল পর্যটন উত্‍সব। তিস্তা-রঙ্গিত টুরিজম ফেস্টিভ্যাল শীর্ষক ৫ দিনের এই কর্মযজ্ঞের শুভ উদ্বোধন হতে চলেছে রাজ্যের মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা মুখোপাধ্যায় এর হাত ধরে আগামীকাল অর্থাত্‍ ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৭। উত্‍সবের মূল অনুষ্ঠান দার্জিলিং এর চৌরাস্তাকে কেন্দ্র করে অনুষ্ঠিত হলেও এই জেলার অন্য দুটি মহকুমা মিরিক ও কার্শিয়াং ছাড়াও নব গঠিত জেলা কালিম্পংএ ও বসতে চলেছে উত্‍সবের আসর। আগামী ২৭, ২৮ ও ২৯ ডিসেম্বর দার্জিলিং এর বিখ্যাত ম্যালে অনুষ্ঠিত হচ্ছে উত্‍সবের মূল অনুষ্ঠান। ৫ দিনের এই উত্‍সবে থাকছে পাহাড়ের পর্যটন বিকাশে নানা ইভেন্ট, যেমন থাকছে স্থানীয় পুষ্প প্রদর্শনী, তেমনি থাকছে মাউন্টেন বাইকিং, প্যারা-গ্লাইডিং, রক ক্লাইম্বিং, হাফ ম্যারাথন, ফ্রী জরবিং বল রাইড, রিভার রাফটিং, টয় ট্রেনে জয় রাইড, ল্যান্ডওভার সওয়ারী হয়ে পাহাড়ের প্রকৃতিকে নিজের করে পাওয়া, থাকছে তিস্তা ও রঙ্গিত নদীর মিলনস্থল ত্রিবেণীতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এছাড়াও থাকছে সরকারী ও বেসরকারি নানান স্টল, আলোচনা সভা, নৃত্য প্রতিযোগিতা, বেবী শো, ডগ শো, কাইট ফেস্টিভ্যাল সহ দেদার অনুষ্ঠান। এর সাথে পর্যটকরা পাহাড়ের সংস্কৃতির সাথেও পরিচিত হতে পারবেন এখানকার স্থানীয় ও অন্যান্য শিল্পীদের পরিবেশিত অনুষ্ঠানে। আগামী ২৮ ও ২৯ ডিসেম্বর উত্‍সবের আসর বসছে কার্শিয়াং এ, এবং আগামী ৩০ ও ৩১ ডিসেম্বর আসর বসবে মিরিকে, অপর দিকে কালিম্পঙে উত্‍সব চলবে ২৯ ও ৩০ ডিসেম্বর। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পর্যটন দপ্তর ও গোর্খাল্যাণ্ড টেরিটোরিয়াল অ্যাডমিনিস্টেশন আয়োজিত এই উত্‍সব উপলক্ষ্যে পর্যটকদের ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে পাহাড়ের রাণী দার্জিলিং এ। তিস্তা-রঙ্গিত টুরিজম ফেস্টিভ্যালের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডার হলেন তেনজিং নোরগের পুত্র পর্বতারোহী জামলিং তেনজিং নোরগে।

চিত্র: সংগৃহীত

চিত্র: সংগৃহীত

Categories: Uncategorized