Uncategorized

রাজ্যে এবার লেপার্ড সাফারি পার্ক

অতীতের খয়েরবাড়ি

পশ্চিমবঙ্গের অন্যতম বনাঞ্চল জলদাপাড়া অভয়ারণ্য সংলগ্ন এলাকায় রাজ্য বন দপ্তর ২০১৬ সালে শিলিগুড়িতে স্থাপিত বেঙ্গল সাফারি পার্কের অনুকরণে তৈরি করতে চলেছে ‘লেপার্ড সাফারি পার্ক’। প্রস্তাবিত এই পার্কের জন্য জমিও ঠিক করা হয়ে গেছে। সম্প্রতি রাজ্যের বনমন্ত্রী বিনয়কৃষ্ণ বর্মন জলপাইগুড়িতে এক অনুষ্ঠানে বন দপ্তরের প্রস্তাবিত এই পার্কের কথা জানান। তিনি জানান লেপার্ড সাফারি পার্কের সকল রকম পরিকাঠামো প্রস্তুত, এখন শুধু দরকার ‘জূ অথরিটি অফ ইন্ডিয়া’র অনুমোদন। খয়েরবাড়ি ব্র্যঘ্য পুনর্বাসন কেন্দ্রকে নবরূপে সাজিয়ে তুলে এই ‘লেপার্ড সাফারি পার্ক’ গড়ে তোলা হবে এবং এর জন্য ২৩ হেক্টর জমিও চিহ্নিত করা হয়ে গেছে। অতীতে এই পার্কে ব্যাটারি চালিত গাড়িতে সাফারি চলত, পরে তাও বন্ধ হয়ে যায়। আর এখন আর ওই কেন্দ্রে কোনও বাঘ না থাকার জন্য পর্যটকরাও ভিড় করেন না এখানে। বনমন্ত্রীর ঘোষণার পর লেপার্ড সাফারি পার্ককে কেন্দ্র করে খয়েরবাড়ির পর্যটনের পুনরায় উন্নতিতে এই অঞ্চলের আপামর জনগণ বেশ আশাবাদী। বর্ষায় জঙ্গল বন্ধ থাকলেও প্রচুর জঙ্গলপ্রেমী পর্যটক চান বর্ষায় জঙ্গলের রূপ আস্বাদন করতে, আর এই বিষয়টিকে মাথায় রেখে রাজ্যের বনদপ্তর চাইছে জঙ্গল লাগোয়া এলাকায় পর্যটক আবাস তৈরি করতে, আর এই উদ্দেশ্যে জঙ্গল লাগোয়া এমন কিছু জায়গাকে বাছা হয়েছে এবং সেই সকল জায়গাগুলিকে পর্যটনের উপযুক্ত করে গড়ে তুলতে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শও নেওয়া হচ্ছে বলে এদিনের অনুষ্ঠানে বনমন্ত্রী ঘোষণা করেন।

অতীতের খয়েরবাড়ি

অতীতের খয়েরবাড়ি পার্কে ব্যাটারি চালিত গাড়িতে সাফারি

Categories: Uncategorized